Image
 
Gifts: Misti | Mahabhoj | Cake
Movie: Bengali | Hindi | Satyajit
Music: Rabindra | Najrul | Adhunik
Books: Children | Pujabarshiki | Novel
শিব রাত্রির ব্রত ও নতুন প্রজন্ম প্রিন্ট কর ইমেল
লিখেছেন অসীমকুমার   
আর্টিকেল সূচি
শিব রাত্রির ব্রত ও নতুন প্রজন্ম
পাতা 2
পাতা 3

১ লা জানুয়ারী তো প্রায় এসে গেলো। নতুন বছর আসছে। আজকাল আবার অনেকেই ইংরাজী নববর্ষেই সব resolution সেরে নেন। কিন্তু আশার কথা এই যে নতুন কিছু যোগ বা বিয়োগ করবার জন্য বাংলা নববর্ষ আপনাকে দ্বিতীয় সুযোগ দিচ্ছে। তাই যদি আগেরটা মিস করে যান তাহলে ১লা বৈশাখে সুধরে নেবার জন্য আর একটা সুযোগ রইল। যাক, নতুন বছর এলো। জ্যোতিষীদের এই সময়টা খুব ভালো যায়। নতুন বছরে কি হবে না হবে তা জানতে একটু কৌতুহল তো হতেই পারে। একটা জিনিষ কিন্তু আজো বদলায়নি আমাদের মধ্যে।

চাকরি, বিয়ে, মামলা, প্রেম, ভালোবাসা, প্রাপ্তি যোগ সব কিছুরই জানবার আগ্রহ ও মনমতো না হলে তার সমাধান খুঁজতে যাওয়া। আমার খুব নতুন প্রজন্মদের সাথে মিশতে ভাল লাগে। আমি তো সবার ছোটো মামা। ওটাই আমার নাম হয়ে গেছে। এবারে আসি নতুন প্রজন্মদের কথায়। ওদের মধ্যে একটা প্রাণের জোয়ার আছে। এরা অনেকেই পুরুষদের পাশাপাশি লড়াই করে দেখিয়ে দিয়েছেন ‘হাম কিসিসে কম নেহি’। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এরা নিজেদের জীবনসাথী নিজেরাই পছন্দ করে নেন, এরা বুদ্ধিমতী, শিক্ষিতা। নিজের পায়ের ওপর তারা দাঁড়িয়ে তবেই অন্য কথা ভাবেন। ঝোঁকের বশে বা ভাবের আবেগে এরা কিছু করতে চান না। আর সব কিছুই যুক্তি তর্ক ও বাস্তবতা দিয়ে বিচার করেন। এরা কিছু করতে চান না। আর সব কিছুই যুক্তি তর্ক ও বাস্তবতা দিয়ে বিচার করেন। এরা আমার অতি প্রিয়। বেশ কিছু দিন আগের কথা, ভাগ্নীর কিছু বন্ধুর সাথে মজা করে আচ্ছা ঐদঐচ্ছ সবাই চাকরি করে। কেউ কেউ আবার ছোটো খাটো একটা ব্যাবসাও খুলে বসেছেন। ঢাকুরিয়া লেকের কিছুটা দূরেই একটা ছোটো রেস্তরাতে মাঝে মাঝে এদর সাথে দেখা হয়। সেটাই আমাদের মামা-ভাগনে-ভাগ্নী মজলিস। কথার আর শেষ নেই। bollywood, International, politics, career, disco, musicworld, cricket, restaurant, dieting, Yoga, love, personal problems থেকে কোনোটাই আর বাদ থাকে না। হটাৎ মনে হলো দেখি এই প্রজন্মের কি চিন্তা ধারা। কিছু দিন পড়েই তো শিব রাষিন। সামনেই ছিল অমিতা ওকেই দুম করে প্রশ্ন করলাম। তুমি কি শিব রাষিনর ব্রত কর? একটু ভুরু কুচকে অবাক হয়ে আমার দিকে তাকাল। তার পর জীভটা নিজের ঠোঁটের ওপর বুলিয়ে নিয়ে রাজ-হাঁসের মত গ্রীবা বাঁকিয়ে সেই সাথে শরীরে আর একটু দোলা দিয়ে উত্তর দিল ধু-উ--উউস! কি যে বল না? ঐ সব আজকাল কেউ করে নাকি? দেখোনি কতো গরীব ঘরের মেয়ে, স্বল্প শিক্ষিতা মেয়ে বা রুপহীনা মধ্যবিত্ত ঘরের মেয়েরা তো বছরের পর বছর ঐ শিব রাষিনর পুজা করে করে তো বুড়ি হয়ে গেলো। আরে শোনো, ঐ সব আর আজকাল এই যুগের মেয়েরা করে না। আর আজকাল আমরা শিবের মতো বরও চাইনা।
হ্যাঁ? তবে কার মতো চাও? কার্তিকের মত?
কেন তুমি রোজকার খবরের কাগজ পড় না? সেই সন ইয়াং হ্যান্ডসাম যাদের নাম প্রায়ই কাগজে থাকে সেই রকম কাউকে চাই। ভালো রোজগার করবে। সত্যি তো তাহলে শিবরাষিন করে কি লাভ? কিন্তু তাহলে কি শিব রাষিনর ব্রত আস্তে আস্তে বন্ধ হয়ে যাবে নাকি? কি যে দিনকাল পড়েছে। পাস থেকে তৃনা বললো তা হতে পারে। বলাকা বাধা দিয়ে বলল, না না শিব রাষিন থাকবেই। আর অনেকে তো আজকাল জল ঢালতে গেলে এটাও প্রমাণ করে যে আমি এখোনো কুমারী তাই না? বেশ সেজে গুজে অনেকে জল ঢালতে যায় দেখনি? তার পর নিজেদের মধ্যে কি সব কথা বলে নিয়ে একটু ফিক করে হেঁসে বললো। আমাদের শিব রাষিন তো রোজই। পঞ্জিকা দেখে আমাদের শিব রাষিন হয় না। তার মানে? তোমরা নতুন কিছু বের করেছো নাকি? তার মানে বুঝলে না?


 

প্রতিবেশী ওয়েবজিন