Image
 
Gifts: Misti | Mahabhoj | Cake
Movie: Bengali | Hindi | Satyajit
Music: Rabindra | Najrul | Adhunik
Books: Children | Pujabarshiki | Novel
নেতাজীর হোমফ্রন্ট- ১০ প্রিন্ট কর ইমেল
লিখেছেন সত্যব্রত মজুমদার   
আর্টিকেল সূচি
নেতাজীর হোমফ্রন্ট- ১০
পাতা 2
পাতা 3
পাতা 4

১৯৩০ এর দশকের দ্বিতীয়ার্ধে সুভাষচন্দ্রের সঙ্গে বি-ভির প্রকাশ্য ও গুপ্ত আন্দোলনে সহযোগিতা ও সহমর্মিতার পরিসরে বি-ভি সুভাষচন্দ্রকেই এই সার্বিক নেতৃত্বের আসনে কেন অধিষ্ঠিত করে তা বি-ভির অন্যতম প্রধান নেতা সত্যরঞ্জন বক্সী মহাশয় খোলাখুলি আলোচনা করেন তাঁর লেখা “কেন নেতাজী” প্রবন্ধটিতে। প্রবন্ধটি ১৯৬৮ সালে নেতাজীর জস্মদিনে ‘বসুমতী’ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। বিষয়টাকে সহজ ও বোধগম্য করার জন্য এখানে অংশবিশেষ তুলে দেও হলো। তিনি লিখেছেন--“ নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসু ‘নেতাজী’ কেন? এখন থেকে চল্লিশ বৎসর পূর্বে বাংলার কয়েকজন বিশিষ্ট কর্মী বিপ্লবী দলের নেতা ও নেতৃস্থানীয় এই প্রশ্নই তুলেছিলেন। নেতাজী তখন সবেমাত্র মান্দালয় বন্দীশালা হতে ফিরে এসে বঙ্গীয় প্রাদেশিক কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। আমি কোন বিপ্লবী দলভুক্ত-এরা সকলেই জানতেন। আমি সর্বাবস্থায় ছায়ার মত নেতাজীকে অনুসরণ করি। ১৯২১ হতে শুরু করে দেশ বিভাগের পূর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত বিপ্লবী দলগুলি (অনুশীলন, যুগান্তর কি অন্য বিপ্লবী গোষ্ঠী) বাংলা কংগ্রেসে সংখ্যাগরিষ্ঠ ছিলেন। তাঁদের ভোটেই কংগ্রেস নেতা নির্বাচন কি কমিটিগুলি গঠন করেছে।

“বিপ্লবী বন্ধুদের বক্তব্যঃ সুভাষচন্দ্র বিপ্লবী গোষ্ঠীর অন্তর্ভূক্ত নন। আমরা কেন বিপ্লবিদলের সভ্যকে বরণ না করে সুভাষচন্দ্র বসুকে নেতারূপে বরণ করে নিলাম। মনে আছে আমি জবাব দিয়েছিলাম-- অবশ্য ভোটাধিক্যে আমরা কোন রাম শ্যাম কি যদু কে কংগ্রেসের সভাপতি পদে অভিষিক্ত করতে পারতাম। ভোটের বাইরে দেশ আছে। দেশ কি রাম কিংবা যদুকে গ্রহণ করত? De-Velera, Sanyet Sen বিপ্লবী দলের নেতা - অথচ তাঁরাই দেশেরও নেতা। আমাদের কোন বিপ্লবী নেতা সত্যই দেশের গ্রহণযোগ্য নেতা হিসাবে উত্তরণ করলে প্রশ্নটি অন্যরূপে নিতে পারত। শুধু ভোটে নেতা হয় না। প্রশ্ন এল কিসে হয়? হয় ব্যক্তিত্যে, শিক্ষায়, চরিত্রে, চরিত্রগত আভিজাত্যে, সাধনায়, অনুষ্ঠানে। ইতিহাসের একটা দিক আছে--যা সংখ্যা দিয়ে নির্ধারিত হয় না। বোঝা শক্ত-- “imponderable” of History। সহস্র সোপান বেয়ে বুকের পাঁজরে আলোক শিখা বহন করে সুউচ্চে দাঁড়িয়ে ‘নেতাজী’-জগতের বিষ্ময়, ভারত ইতিহাসের মহাপুরুষ--মূর্তবানী”।

(এর পর আগামী সংখ্যায়)


নেতাজীর হোমফ্রন্ট বাংলা ১৪০৪ সালের আশ্বিন মাসে পুস্তক আকারে প্রকাশিত হয়। লেখকের অনুমতিক্রমে মুখোমুখি.কম, ইন্টারনেট পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে এই পুস্তকটি পুনঃপ্রকাশ করা হচ্ছে।

Comments (0) >>
Write comment

This content has been locked. You can no longer post any comment.


busy

সত্যব্রত মজুমদার
About the author:


 

প্রতিবেশী ওয়েবজিন